ইফতার বিক্রেতা ঋষি সরকার

ত্রিশ বছর ধরে রাজশাহী শহরের রাস্তায় রাস্তায় চপ, পেঁয়াজি সহ নানান খাবার বিক্রি করে আসছেন ঋষি সরকার। তবে রমজান মাস আসলেই শুরু হয়ে যায় তার জমজমাট ব্যবসা, কারন এসময় পেঁয়াজি, বেগুনি, বুট ও চপসহ নানান খাবারের চাহিদা অনেকটা বেড়ে যায়।

ঋষি সরকার সনাতন ধর্মে বিশ্বাসী তবুও সে ইফতার বিক্রি করে কারন তিনি মনে করেন সব কিছু তো একজন স্রষ্টার তৈরী আর মানব সেবার চেয়ে বড় ধর্ম এই পৃথিবীতে আর কোথাও থাকতে পারে না।

তার এই ব্যবসা করার জন্য পুঁজি প্রয়োজন হয় মাত্র আট হাজার টাকা। ঋষি সহ তিনজন দোকানে কাজ করে। প্রতিদিন খরচ বাদে চারশত টাকা আয় করে সে। এই টাকায় জীবিকা নির্বাহ করা খুব কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায়। তিনি খুব আবেগের সাথে একটি কথা বললেন যে “ ত্রিশ বছর ধরে ব্যবসা করি তবে জীবনে উন্নতি করতে পারিনি” ।

এই দোকানের মূল ক্রেতা হচ্ছে অল্প রোজগারের মানুষগণ কারন এখানে অন্য দোকানের চেয়ে কম দামেই সব কিছু বিক্রি করা হয়। তাই সার্ধের মধ্যে সবটুকু কেনার উপযোগী করেই ঋষি সরকার দাম রাখেন তার দোকানে।

রাস্তার পাশে দোকান হওয়ার কারনে সবাই এখানে কিনতে চায়না তবে হোটেলগুলোতে ভালই বিক্রি হয়। ঋষি একটা ভাল বুদ্ধি শিখেছেন সবাইকে স্যার বলে ডাকলে তখন কেউ কেউ তার দোকানে কিনতে আগ্রহ দেখায়। এভাবে অনেক কলা-কৌশল ব্যবহার করে ছোট ছোট ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা টিকিয়ে রেখেছে আর প্রতিদিন লড়াই করে যাচ্ছে অপরাজিত এক প্রতিপক্ষের সাথে।

আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ আছে যারা একটু সুখের জন্য জীবনের সকল পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে প্রস্তুত থাকে, হার না মানা ঐ মানুষগুলো জীবনের বাকি সময়টুকু লড়াই করে যাবে মুখে এক চিলতে হাসি নিয়ে আর কাউকে কখনো বুঝতে দেবে না জীবন যুদ্ধে কতটা ক্লান্ত তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *