মাদক ঝুঁকিতে পথশিশুরা | The Interview BD

জীবন যুদ্ধে না পেরে উঠা বাচ্চাগুলো পথে পথে ঘুরে হয়ে যায় পথশিশু। বাবা মাকে হারিয়ে এমনি একজন বাচ্চা রেল স্টেশানে স্থান পায়। মানুষের কাছে শুনেছিল সিগারেট খেলে নাকি কষ্ট কমে তাই সিগারেট খেয়ে কষ্ট কমানোর চেষ্টা।

সিগারেট খেতে নাকি ভাল লাগে না তার তবুও বাবা মাকে মনে পড়লে দু একটা খায়। বাবা মা মারা যাওয়ার পর তাকে আর কেউ আপন করে নিতে পারেনি। তাই বেঁচে থাকার তাগিদে এক স্টেশান থেকে অন্য স্টেশানে ঘুরে বেড়ায় সে।

আমরা হয়তো এইসব বাচ্চাদের আপন করে নিতে পারবো না, তবে একটু দয়া মায়া দেখিয়ে হলেও তো তাদের সাথে একটু ভাল ব্যবহার দেখাতে পারবো। আর যদি কিছু করতেই চাই তাদের জন্য তাহলে কোন হোটেলে আধা বেলা কাজ করার সুযোগ করে দিতে পারি যেনো তারা দু’বেলা পেট পুরে খেতে পায়।

এই বাচ্চাগুলোকে যারা কাছ থেকে দেখবে তারা বুঝবে আসলে এরা আমাদের কাছে জোর করে বেশি কিছু চাইনা, তারা শুধু দু’বেলা খাবার জন্য আপনার আমার কাছে এসে বিরক্ত করে খাবার টাকা উঠে গেলেই এদের আর কিছুই লাগে না।

এখন হয়তো পথশিশুরা জেনে না জেনে সিগারেট খাচ্ছে তবে আমরা যদি এখন থেকে নিজেদের বাচ্চাদের এবং পথশিশুদের মাদক ব্যাপারে সতর্ক না করি তবে একদিন হয়তো পথশিশুদের দেখে আপনার আমার শিশুরাও মাদক সেবনে ঝুকে পড়বে তাই নিজের শিশুর কথা ভেবে হলেও সবার মাঝে মাদক সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *