একজন শ্রমিকের কথা

প্রতিদিন ভোরে কাজের সন্ধানে যারা শহরে আসে তাদেরও একটা পরিবার আছে তাদেরও ভারি কাজ গুলো করতে কষ্ট হয়, রোদ্রে তাদের শরীর দিয়ে ঘাম বেরিয়ে তারাও ক্লান্ত হয়ে যায় ।এই সব মানুষকে যখন বাড়তি কিছু টাকা দেওয়ার কথা বলা হয় তখন তারা ক্লান্তি উপেক্ষা করেও পরিবারের জন্য বাড়তি টাকা টুকু নেওয়ার জন্য ক্লান্ত শরীর নিয়েও কাজ করে যায়। তাদের ভুলগুলোর জন্য হয়তো আপনার হাজার টাকার অপচয় হবে না। কিন্তু আপনি আমি যদি তাদের ন্যায্য পারিশ্রমিক না দেই তাহলে সেটা হবে চরম অন্যায়।

প্রশ্নঃ আপনার নাম?
বাবুঃ আমার নাম বাবু।
প্রশ্নঃ বাড়ি কোথায় আপনার?
বাবুঃ বানেশ্বর।
প্রশ্নঃ আপনি কি কাজ করেন?
বাবুঃ আমি মাটি কাটি, ইট বালু বহনের কাজ করি।
প্রশ্নঃ কতদিন থেকে এই কাজ করছেন?
বাবুঃ এই হবে ১৫ বছর।
প্রশ্নঃ অনেক কাজই তো আছে সব বাদ দিয়ে এই কাজ করেন কেন?
বাবুঃ এই কাজে নগদ টাকা পাওয়া যায় তাই।
প্রশ্নঃ এই কাজে তো অনেক পরিশ্রম করতে হয় তাই না?
বাবুঃ হ্যাঁ পরিশ্রমও বেশি আবার টাকাও বেশি পাওয়া যায়।
প্রশ্নঃ আপনার সারাদিন কিভাবে কাটে যদি একটু বলতেন।
বাবুঃ ভোর পাঁচটায় ঘুম থেকে উঠি নামাজ পড়ি তখন আমার বৌ রান্না করে। রান্না হয়ে গেলে খাওয়া দাওয়া করে দুপুরের জন্য খাবার বেধে নেই। আমরা অনেকেই একসাথে কাজে আসি তাই সকালে যার আগে খাওয়া হয়ে যায় সে সবাই কে ডেকে ডেকে বাড়ি থেকে বের করে। তারপর সবাই মিলে বানেশ্বর থেকে বাসে করে রাজশাহী আসি। তারপর এইভাবে রাস্তার পাশে সবাই বসে থাকি কখন কেউ এসে কাজের জন্য নিয়ে যাবে এই আশায়। এরপর কাজে লাগি ৮টায় আর শেষ হয় ৩ টায় কোনদিন ৫ টায়।
প্রশ্নঃ আপনাদের কারা কাজের জন্য নিয়ে যায়?
বাবুঃ ঠিকাদার এর কাজেই বেশি যেতে হয় তাছাড়া কারোর বাড়ির কাজ থাকলেও নিয়ে যায় সেখানেও কাজ করি।
প্রশ্নঃ ছেলে মেয়ে কয়টা আপনার?
প্রশ্নঃ তারা কি পড়াশোনা করে?

বাবুঃ একটা ছেলে একটা মেয়ে। বাবুঃ হ্যাঁ লেখাপড়া করে।
প্রশ্নঃ আপনি কি চান যে আপনার ছেলেও এমন কাজ করুক?
বাবুঃ না আমি তো চাইনা যে আমার ছেলেও আমার মত এত কষ্টের কাজ করুক। আমি চাই আমার ছেলে পড়াশোনা করে চাকরি বাকরি করবে।
প্রশ্নঃ আপনার কাজে কি কি সমস্যা হয়?
বাবুঃ কাজ করার সময় আমি ভাবি কি করে এই কাজ আমি করবো এতো কষ্টের কাজ তারপরও রোদ গরমের মধ্যেও করতে হয়। সংসার তো চালাতে হবে।
প্রশ্নঃ আপনারা যাদের কাজ করতে যান তারা কি আপনাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করে?
বাবুঃ যাদের কাজ করি তারা একটু এদিক থেকে সেদিক হলেই বলে যা তোর আজ টাকা দিবো না এইতো সেদিন একজন মহিলার কাজে গিয়েছিলাম সে বলছে যা আজ তোদের পেমেন্ট দিবো না।
প্রশ্নঃ গালাগালি করে নাকি?
বাবুঃ কিছু কিছু লোক আছে গালাগালিও করে।
প্রশ্নঃ কাজে এসে পরিবারের কার কথা বেশি মনে পড়ে?
বাবুঃ ছেলে মেয়ের কথায় বেশি মনে পড়ে। কাজে একটূ কষ্ট হলেও তাদের কথা মনে করে পরিবার চালানোর জন্য কাজ করতে হয়। গরিবের জীবন ভাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *